আন্তর্জাতিক

যু’ক্তরাজ্যের সুপ্রিম কোর্টে আ’ট’কে গেল স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা গণভোট

স্কটল্যান্ডের স্বাধীনতা বিষয়ক প্রস্তাবিত একটি গণভোট আ’ট’কে দিয়েছে ব্রিটিশ সুপ্রিম কোর্ট। বুধবার (২৩ নভেম্বর) সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা এক নির্দেশনায় বলেছেন, যু’ক্তরাজ্য থেকে বেরিয়ে স্বাধীন রাষ্ট্র গঠনের লক্ষ্যে স্কটল্যান্ড সরকার একপাক্ষিকভাবে গণভোট আয়োজন করতে পারবে না।

স্কটল্যান্ডের স্কটিশ ন্যাশনাল পার্টির (এসএনপি) নেতা ও ফার্স্ট মিনিস্টার নিকোলা স্টার্জন ২০২৩ সালের ১৯ অক্টোবর গণভোটের আয়োজন করার আগ্রহের কথা জানান। কিন্তু যু’ক্তরাজ্যের সরকার এ গণভোটের আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দিতে অস্বীকার করেছে।

যু’ক্তরাজ্য সরকারের অনুমোদন ছাড়া স্কটল্যান্ডের পার্লামেন্ট এ ধরনের গণভোটের আয়োজন করতে পারে কিনা, সে বিষয়টি নিষ্পত্তি করার জন্য আ’দালতের শরণাপন্ন হয় স্কটল্যান্ড।

এ রায় মেনে নিয়েছেন এসএনপি নেতা স্টার্জন। তিনি বলেছেন, যে আইন স্কটল্যান্ডকে ওয়েস্টমিনস্টারের সম্মতি ব্যতীত নিজেদের ভবিষ্যত বেছে নেয়ার অনুমতি দেয় না তা স্বেচ্ছাসেবী অংশীদারিত্ব হিসাবে যু’ক্তরাজ্যের ধারণাকে মিথ হিসেবে প্রকাশ করে।’

এর আগে ফার্স্ট মিনিস্টার জানান, তিনি যু’ক্তরাজ্যের সঙ্গে একটি সমঝোতায় পৌঁছাতে চান। ২০১৪ সালে সবশেষ গণভোটের সময় দুই সরকার সমঝোতায় পৌঁছেছিল। সেবারের গণভোটে স্কটল্যান্ডের ৫৫ শতাংশ মানুষ যু’ক্তরাজ্যের সঙ্গে থেকে যাওয়ার পক্ষে ভোট দেন। বাকি ৪৫ শতাংশ স্বাধীনতার পক্ষে ভোট দেন।

স্বাধীনতা অর্জন করতে স্কটল্যান্ডকে ওয়েস্টমিনিস্টারের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। যু’ক্তরাজ্য সরকারের সঙ্গে সমঝোতায় পৌঁছাতে না পারলে গণভোটের ফলের আন্তর্জাতিক গ্রহণযোগ্যতা পাওয়ার সম্ভাবনা কমে যাবে। তবে আ’দালতের সিদ্ধান্ত যু’ক্তরাজ্যের সরকারের পক্ষে গেলেও স্কটল্যান্ডের নেতা স্টার্জন হাল ছেড়ে দেবেন না।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!